ঢাকা ২১ জুন, ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মের ছুটি কমল, শনিবারের ছুটি বহাল গরুর মাংসের আচারের রেসিপি ভোলায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু এখান থেকেও পাল্টা গুলি চালানো হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা কার সঙ্গে বাগদান সারলেন অভিনেত্রী চমক মারাত্মক ‘মাংস খাওয়া’ ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে পড়ছে জাপানে বাজেটে অনেক কিছু পুনর্বিবেচনা করা সম্ভব: অর্থমন্ত্রী বেনজীরকে আর সময় দেওয়া হবে না : দুদক আইনজীবী ‘ডলার সংকটের মূল কারণ টাকা পাচার’

ইসলামী ব্যাংক চল্লিশ বছরে পদার্পন: ব্যাংকের স্থায়ী সাব-স্টাফদের পদোন্নতির দাবি

#

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৫ এপ্রিল, ২০২২,  1:05 PM

news image

বিশ্বসেরা ১০০০ ব্যাংকের তালিকায় দেশের একমাত্র ব্যাংক ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে এই ব্যাংকটি চল্লিশ বছরে পদার্পন করেছে। দেশে এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ব্যাংকটির সাফল্য ও স্বীকৃতি রয়েছে অনেক। গত বিশ বছর ধরে একটানা সর্বোচ্চ মুনাফা অর্জন করার সনদ রয়েছে ইসলামী ব্যাংকের ঝুঁড়িতে। পাহাড়সম এই সুনাম ও সাফল্যের পেছনে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীর অক্লান্ত পরিশ্রম ও অবদান রয়েছে। কিন্তু ব্যাংকের সকল কার্যক্রম তথা সকল গ্রেডের নিয়োগ পদোন্নতি স্বাভাবিক থাকলেও সাব-স্টাফদের চলমান পদোন্নতি প্রক্রিয়া কোন কারণ ছাড়াই বন্ধ করে রাখা হয়েছে। স্থায়ী সাব-স্টাফদের মধ্যে ছয় শতাধিক স্নাতক ও স্নাকোত্তরসহ ব্যাংকিং ডিপ্লোমা পাস রয়েছেন।

যারা পদোন্নতির আশায় এই পদে যোগদান করে সততা, নিষ্ঠা ও সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। সর্বশেষ ২০১৭ সালে এই পদ থেকে ৫৫ জনকে পদোন্নতি প্রদান করে এই গ্রেড থেকে চলমান পদোন্নতি প্রক্রিয়াটি বন্ধ করে রাখা হয়েছে। যখন যোগ্যতা সম্পন্ন অনেকেই পদোন্নতি বঞ্চিত রয়ে যায়। পরে যোগ্যতা সম্পন্ন সকলকে পরবর্তী গ্রেডে উন্নীত করার জন্য চেয়ারম্যান, এমডির নিকট বার বার লিখিত আবেদন জানিয়েও কোন লাভ হয়নি। তারা দায়িত্ব এড়ানোর জন্য একে অন্যের সাথে কথা বলতে বলেন। এভাবেই গত ৫ বছর ধরে বিষয়টি কোন সুরাহা করেনি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ফলে এ নিয়ে সাব-স্টাফদের মধ্যে দিন দিন ক্ষোভের দানা বড় হচ্ছে। মাস্টার্স পাস কর্মচারীদের মধ্যে কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রয়েছেন উল্লেখ করে তারা বলেন, মানবিক ব্যাংকিংয়ের অগ্রপথিক ইসলামী ব্যাংক চল্লিশ বছরে পদার্পন উপলক্ষে যথাযথ কর্তৃপক্ষ বিষয়টির সুরাহা করবেন বলে আমাদের বিশ্বাস। নতুবা প্রয়োজনে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইব-এটি আমাদের প্রাণের দাবি।

logo

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. নজরুল ইসলাম